তাড়াশে কোরবানির পশুর চামড়ার বাজারে হতাশা
২৫ জুলাই, ২০২১ ০৩:২০ পূর্বাহ্ন

  

তাড়াশে কোরবানির পশুর চামড়ার বাজারে হতাশা

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, তাড়াশ
২১-০৭-২০২১ ০৭:০৯ অপরাহ্ন
তাড়াশে কোরবানির পশুর চামড়ার বাজারে হতাশা
সিরাজগঞ্জের তাড়াশে এছর কোরবানির পশুর চামড়ার দাম নিয়ে মৌসুমি ব্যাবসায়ী ও পাইকারদের মধ্যে চরম হতাশা বিরাজ করছে। এবছর ছাগলের চামড়ার দাম ছোটগুলো ১০ থেকে ১৫টাকা ও বড় চামড়ার দাম ১৫ থেকে ২০টা করে আর মাঝাড়ী গরুর চামড়ার দাম ১৫০ থেকে ২৫০ টাকা আর বড় গরুর চামড়রার ৩০ থেকে ৫শত টাকা ক্রয় করছেন মৌসুমি চামড়া ব্যবসায়ীরা। কিন্ত চামড়া কেনার পর চামড়া পাইকাররা তাদের থেকে তারও অনেক কম দাম বলছেন্। এতে চরম হতাশার মধ্যে মৌসুমি ব্যবসায়ীরা।

বুধবার (২১জুলাই) বিকালে উপজেলার তাড়াশ পৌর বাজারে ঘুরে দেখা গেছে, চামড়ায় কাটা ও ফাটার অজুহাতে দাম দিচ্ছেন না পাইকাররা ক্রেতারাও। এ নিয়ে দু’ পক্ষের মধ্যে চলছে বাকবিত-া। বিক্রেতাদের অভিযোগ ১ লাখ টাকা মূল্যের গরুর চামড়ার দাম ৩০০ টাকাও উঠছে না। 

আলম আহমেদ নামে এক ব্যাক্তি জানান, তার নিজের কোরবানি দেওয়া গরুর চামড়া অন্তত দেড় হাজার টাকায় বিক্রি হবে। কিন্তু সেই চামড়া ৪০০ টাকায় বিক্রী করা হয়েছে।

পাইকারী ব্যবসায়ী জহির উদ্দিন বলেন, পাড়া-মহল্লায় ঘুরে ঘুরে চামড়া কিনেছি। কিন্ত বাহিরের থেকে আসা পাইকাররা সেই চামড়ার দাম কেনার চেয়ে খুবই বলছে। 

চামড়া ব্যবসায়ী সোহানুর রহমান, "ট্যানারিতে গড়ে চামড়া প্রতি ৫০০ টাকা হিসেব করে। আমরা সেখানে ৬০০ টাকায়ও চামড়া কিনছি। চামড়া প্রতি লেবার, লবণ ও অন্যান্য খরচ মিলিয়ে আরও ২০০ থেকে ৩০০ টাকা ব্যয় হবে।

চামড়া ব্যবসায়ী মফিজ উদ্দিন জানান, "কসাইদের চামড়া ভাল থাকে তাই সেগুলোর দামও বেশি দেয়া হচ্ছে। এমনকি ৪০০ থেকে ৫০০ টাকা পর্যন্ত দেয়াও সম্ভব হয়। কিন্তু সাধারণ মানুষের করা চামড়ায় অসংখ্য কাটা থাকে। ফলে ওই চামড়া কোনো কাজে আসে না আর আমরা তা কিনতেও চাইনা। কিন্তু বাধ্য হয়ে ২০০ বা ১০০ টাকায় কিনি। 


স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, তাড়াশ ২১-০৭-২০২১ ০৭:০৯ অপরাহ্ন প্রকাশিত হয়েছে
এবং 138 বার দেখা হয়েছে।

পাঠকের ফেসবুক মন্তব্যঃ
Loading...
  • সর্বাধিক পঠিত
  • সর্বশেষ প্রকাশিত

  

  ঠিকানা :   অনামিকা কনকর্ড টাওয়ার, বেগম রোকেয়া স্মরনী, তৃতীয় তলা, শেওড়াপাড়া, মিরপুর, ঢাকা- ১২১৬
  মোবাইল :   ০১৭৭৯-১১৭৭৪৪
  ইমেল :   [email protected]